Exclusive

বিমান কিনলেন বরিশালের আবুল বাসেদ

কথায় আছে, শখের তোলা দুইশ উনআশি টাকা। সেই শখ যদি পূরণ করতে হয়, তাহলে আপনাকে লক্ষ্য অটুট রেখে হাঁটতে হবে। এভাবেই স্বপ্নপূরণ হলো বরিশাল জেলার বয়রাকান্দি থানার হোটেল ব্যবসায়ী আবু বাসেদের ! সঞ্চয়ের টাকা দিয়ে অবশেষে তিনি বিমান কিনেছেন।

কিন্তু কেনো এমন অদ্ভুত শখ? এ প্রশ্নের জবাবে আবু বাসেদ বলেন, “বিমান কেনা আমার স্বপ্ন ছিলোনা। আমার স্বপ্ন ছিলো কুয়েত যাওয়া। কিডনি বেচে ভিসার টাকা জোগানোর পর ঢাকা থেকে কুয়েত যাবার পথে আমি লুঙ্গি পিন্দে বিমানে উঠি। কিন্তু বিমানের বুয়াদের ঠেলাধাক্কার সোদনে দুইমিনিটও বসতে পারিনি। ঠেইলা ধাক্কায়া বিমান থেকে নামাই দিছে। তারপর থেকেই আমি কসম কাটি, এই বিমান একদিন আমিই কিনুম। লুঙ্গি পিন্দা বিমান চালামু।”

… কিন্তু বিমান কেনার জন্য এত টাকা কোথেকে আসলো?

এ প্রশ্নের জবাবে বাসেদ বলেন, “তিনি চব্বিশটি বিয়ে করার মাধ্যমে ৪৮টি কিডনি বিক্রয় করে বিমানের কেসিং কেনার টাকা জুগিয়েছেন। এটা আসলে বিমান নয়, বিমানের বডি বা খোলস।”

বাসেদের উত্তর শুনে আমাদের সাংবাদিক ক্ষিপ্ত হয়ে টেনেহিঁচড়ে তার লুঙ্গি খুলে নিয়ে অফিসে চলে আসে। পরে তাকে ট্যাং খাইয়ে মাথা ঠান্ডা করানো হয়…

নোয়াখালীর বন্ধুরা লেখাটি প্রথম থেকে আরেকবার পড়ুন –

বিমান কিনলেন বরিশালের আবুল বাসেদ

কথায় আছে, শখের তোলা দুইশ উনআশি টাকা। সেই শখ যদি পূরণ করতে হয়, তাহলে আপনাকে লক্ষ্য অটুট রেখে হাঁটতে হবে। এভাবেই স্বপ্নপূরণ হলো বরিশাল জেলার বয়রাকান্দি থানার হোটেল ব্যবসায়ী আবু বাসেদের ! সঞ্চয়ের টাকা দিয়ে অবশেষে তিনি বিমান কিনেছেন।

কিন্তু কেনো এমন অদ্ভুত শখ? এ প্রশ্নের জবাবে আবু বাসেদ বলেন, “বিমান কেনা আমার স্বপ্ন ছিলোনা। আমার স্বপ্ন ছিলো কুয়েত যাওয়া। কিডনি বেচে ভিসার টাকা জোগানোর পর ঢাকা থেকে কুয়েত যাবার পথে আমি লুঙ্গি পিন্দে বিমানে উঠি। কিন্তু বিমানের বুয়াদের ঠেলাধাক্কার সোদনে দুইমিনিটও বসতে পারিনি। ঠেইলা ধাক্কায়া বিমান থেকে নামাই দিছে। তারপর থেকেই আমি কসম কাটি, এই বিমান একদিন আমিই কিনুম। লুঙ্গি পিন্দা বিমান চালামু।”

… কিন্তু বিমান কেনার জন্য এত টাকা কোথেকে আসলো?

এ প্রশ্নের জবাবে বাসেদ বলেন, “তিনি চব্বিশটি বিয়ে করার মাধ্যমে ৪৮টি কিডনি বিক্রয় করে বিমানের কেসিং কেনার টাকা জুগিয়েছেন। এটা আসলে বিমান নয়, বিমানের বডি বা খোলস।”

বাসেদের উত্তর শুনে আমাদের সাংবাদিক ক্ষিপ্ত হয়ে টেনেহিঁচড়ে তার লুঙ্গি খুলে নিয়ে অফিসে চলে আসে। পরে তাকে ট্যাং খাইয়ে মাথা ঠান্ডা করানো হয়…