Entertainment

ঘুম থেকে উঠে দেখি আমার কুরবানির গরু নেই!

আমি তখন চলচ্চিত্রে বেশ পরিচিত অভিনেতা। তখনকার সময়ে গরুর হাটে যাওয়ার ঘটনা মজার। আবার ভয়ঙ্করও! একবার গাবতলীর গরুর হাটে গিয়েছিলাম গরু কিনতে। হাটে ঢুকতেই লোকজন আমাকে দেখে চিনে ফেলে। তখনও সেলফির প্রতি ঝোক আসেনি। তারপরও বেশ ভিড় জমে গেল। কেউ কেউ ‘মিশা ভাই’ বলে চিৎকার করতে শুরু করতো। আবার কেউ শরীর ছুঁয়ে দেখতে চাইতো। একটা সময় ভিড় সামাল দেয়াটাই কঠিন হয়ে দাঁড়াল। বিষয়টা ভয়ঙ্কর রূপ নিচ্ছিল বলে একরকম ভয়ই পাচ্ছিলাম। আবার ভালো লাগছিলো এই ভেবে যে আমাকে দেখতে এত মানুষের ভিড়!

এক সময় পরিস্থিতি এমন হলো যে, হাটের কর্তৃপক্ষ এসে আমাকে উদ্ধার করে তাদের অফিসে নিয়ে গেল। কারণ হাটে বিক্রির অসুবিধা হচ্ছিল। আমি তাদের সঙ্গে গিয়ে অফিসে বসলাম। তারা আমাকে বললো, ‘মিশা ভাই, আপনার বাজেট কত? এর মধ্যে কয়েকটা গরু আপনাকে দেখাই?’ আমি তাদের কথায় রাজি হলাম। আমাকে কয়েকটা গরু দেখালো, আমি তার মধ্যে একটা গরু নিয়ে বাসায় ফিরে এলাম।

গরু নিয়ে বাসায় ফেরার পর আবার আরেক ঘটনা। সে এক মজার কাণ্ড! গরু এনে বাসার নিচে রেখে দিলাম। সেখানে আমাদের একই বিল্ডিংয়ের আরো কয়েকটি গরু রয়েছে। কোরবানির দিন সকালে ঘুম থেকে উঠে দেখি আমার গরু নেই! অন্য একটা বড় গরু সেখানে বাঁধা। আমি তো চিন্তায় পড়ে গেলাম। কোরবানির গরু এভাবে হারিয়ে গেল! খোঁজাখুঁজি শুরু করলাম। একটা সময় দেখি ফ্ল্যাটের সবার গরু কোরবানি দেয়া হয়ে গেছে। মাত্র একটা গরু রয়ে গেছে। ফ্ল্যাটের সবাই আমাকে বললো, কেউ ভুল করে আপনার গরু নিয়ে জবাই দিয়ে ফেলেছে। এখন এই অবশিষ্টটাই আপনার। আমি বললাম, আমার গরু এত বড় না। সবাই বললো, এটা কোরবানি করেন। আল্লাহ কবুল করবেন। কারণ এখানে বাইরের কেউ নেই। আর কারো অভিযোগও নেই।

তারপর কিছুক্ষণ ভেবে সেই গরু কোরবানি করলাম। গরুটা বেশ বড়। মাংস শেষ করতে পারছিলাম না। পরদিন জানতে পারলাম, আমাদের ফ্ল্যাটের একজন ভুল করে আমার গরু নিয়ে কোরবানি দিয়েছে। তারা সাতজন মিলে কোরবানি দিয়েছিলো। সাতজন মাতব্বর হওয়ায় এই ভুলটা হয়েছে। এটা আমার জীবনে কোরবানি নিয়ে স্মরণীয় একটি ঘটনা।