Sports

মাশরাফিকে নিয়ে যা বললেন চুদাসামা !

কেনিয়ার সাবেক ক্রিকেটার দীপক চুদাসামা। সবসময় ওপেনিংয়ে ব্যাটিং করতেন। কেনিয়া জাতীয় দলের হয়ে তিনি দুইবার খেলেছিলেন ক্রিকেট বিশ্বকাপে। তবে ক্রিকেটের বাইরেও তার ছিলো আলাদা জগত। টেবিল টেনিসে অনেক দক্ষ্য খেলোয়াড় ছিলেন তিনি। এমনকি কেনিয়ার পক্ষে ১৯৮২ সালে ভারতে অনুষ্ঠিত কমনওয়েলথ গেমসে টেনিস তারকা হয়ে অংশগ্রহণ করেছিলেন।

ওয়ানডে খেলেছেন মোট ২০টি। সর্বোচ্চ ১২২ রানের ইনিংসটিও বাংলাদেশের বিপক্ষে। সেই ইনিংসটির কারণে এখনো বাংলাদেশকে মনে রেখেছেন ৫২ বছর বয়সী এ ক্রিকেটার। ১৯৯৭ সালে কেনিয়ার দীপক চুদাসামা ও কেনেডি ওটিয়েনো ২২৫ রানের জুটি গড়েছিলেন। ওটাই ছিল এতদিন বাংলাদেশের বিপক্ষে কোনো দলের সেরা উদ্বোধনী জুটি !

সেই দীপক চুদাসামা কিছুদিন আগে তার ফেসবুক পেজে পোস্ট করে জানিয়েছেন, তার প্রায়ই বাংলাদেশে আসতে ইচ্ছে হয়। বাসায় বসে তিনি পরিবার পরিজনদের নিয়ে মাশরাফিদের খেলা দেখেন। আগামী আইসিসি বিশ্বকাপে চ্যাম্পিয়ন ট্রফির দাবীদারও হতে পারে বাংলাদেশ, এমনটাই আশা করেন বলে জানিয়েছেন দীপক চুদাসামা !

দীপক চুদাসামাকে নিয়ে একালের ছেলেমেয়েরা খুব একটা না জানলেও দীপক চুদাসামা চিরকাল তার নামের জন্য বাংলা ভাষ‍াভাষীদের ক‍াছে অবিস্মরণীয় হয়ে থাকবেন।

উল্লেখ্য যে, ১৯৯৮ সালে ভারতের বিপক্ষে একটি ম্যাচে দীপক চুদাসামা যখন ছক্কা মারে, তখন গ্যালারীভর্তি তার সমর্থকেরা চুদাহ চুদাহ বলে চিৎকার করে তাকে বাহবা জানাচ্ছিলেন। সেসময় গ্যালারীতে থাকা কলকাতার অনেক দর্শকদেরই হাসতে হাসতে পাতলা পায়খা‍না হয়ে যায়।

আজকে কি রোজা রেখেছেন? রোজা না রাখলে নিজেকে কষ্ট দিয়ে পাপমোচন করতে নিউজটি আবার পড়ুন :

কেনিয়ার সাবেক ক্রিকেটার দীপক চুদাসামা। সবসময় ওপেনিংয়ে ব্যাটিং করতেন। কেনিয়া জাতীয় দলের হয়ে তিনি দুইবার খেলেছিলেন ক্রিকেট বিশ্বকাপে। তবে ক্রিকেটের বাইরেও তার ছিলো আলাদা জগত। টেবিল টেনিসে অনেক দক্ষ্য খেলোয়াড় ছিলেন তিনি। এমনকি কেনিয়ার পক্ষে ১৯৮২ সালে ভারতে অনুষ্ঠিত কমনওয়েলথ গেমসে টেনিস তারকা হয়ে অংশগ্রহণ করেছিলেন।

ওয়ানডে খেলেছেন মোট ২০টি। সর্বোচ্চ ১২২ রানের ইনিংসটিও বাংলাদেশের বিপক্ষে। সেই ইনিংসটির কারণে এখনো বাংলাদেশকে মনে রেখেছেন ৫২ বছর বয়সী এ ক্রিকেটার। ১৯৯৭ সালে কেনিয়ার দীপক চুদাসামা ও কেনেডি ওটিয়েনো ২২৫ রানের জুটি গড়েছিলেন। ওটাই ছিল এতদিন বাংলাদেশের বিপক্ষে কোনো দলের সেরা উদ্বোধনী জুটি ! সেই দীপক চুদাসামা কিছুদিন আগে তার ফেসবুক পেজে পোস্ট করে জানিয়েছেন, তার প্রায়ই বাংলাদেশে আসতে ইচ্ছে হয়। বাসায় বসে তিনি পরিবার পরিজনদের নিয়ে মাশরাফিদের খেলা দেখেন। আগামী আইসিসি বিশ্বকাপে চ্যাম্পিয়ন ট্রফির দাবীদারও হতে পারে বাংলাদেশ, এমনটাই আশা করেন বলে জানিয়েছেন দীপক চুদাসামা !

দীপক চুদাসামাকে নিয়ে একালের ছেলেমেয়েরা খুব একটা না জানলেও দীপক চুদাসামা চিরকাল তার নামের জন্য বাংলা ভাষ‍াভাষীদের ক‍াছে অবিস্মরণীয় হয়ে থাকবেন। উল্লেখ্য যে, ১৯৯৮ সালে ভারতের বিপক্ষে একটি ম্যাচে দীপক চুদাসামা যখন ছক্কা মারে, তখন গ্যালারীভর্তি তার সমর্থকেরা চুদাহ চুদাহ বলে চিৎকার করে তাকে বাহবা জানাচ্ছিলেন। সেসময় গ্যালারীতে থাকা কলকাতার অনেক দর্শকদেরই হাসতে হাসতে পাতলা পায়খা‍না হয়ে যায়। – ভিডিওতে দেখুন দীপক চুদাসামার ইন্টারভিউ