Exclusive

বারবার ‘কবে বিয়ে করবে?’ জিজ্ঞেস করায় প্রতিবেশীর চুল টেনে ছিঁড়ে ফেললো সাদিয়া

অনেকেই আছে যারা নানান কারণে কিছুটা সময় দেরি করে বিয়ে করে থাকে। এই দেরি ফ্যামিলীর সবার সহ্য হলেও পাড়া প্রতিবেশীদের সহ্য হয় না। আর এরকম এক ঘটনার জন্যে এক প্রতিবেশীর আহত এবং অপমানিত হতে হয়েছে।

দারাজের অনলাইন শপ থেকে মাত্র ২ টাকায় স্টাইলিশ হুডি জিতে নিন

‘কবে বিয়ে করবে’ – বিরক্তিকর এই প্রশ্নটা শুনতে হয়নি এমন ভাগ্যবান বা ভাগ্যবতী মানুষ সারা পৃথিবীতেই খুব কমই আছে। আপনার বিয়ে করার ইচ্ছে থাক বা না থাক, পরিবার থেকে প্রতিবেশী, সবার ‘কবে বিয়ে করবে’ প্রশ্নের উত্তর দিতে দিতে আপনার মাথা যে খারাপ হয়ে যাবেই, সে বিষয়ে কোনো সন্দেহ নেই।

অযথা এ প্রশ্নের উত্তর দিতে দিতে রাগও হয় অনেকের। কিন্তু চাঁদপুরের সাদিয়া নামের এক যুবতী একটু বেশিই রেগে গিয়েছিলেন।

৯৯ টাকা মোবাইল রিচার্জ জিতে নিন

তার এক প্রতিবেশী বারবার তাকে এই প্রশ্ন করায়, ২৫ বছর বয়সী সাদিয়া রেগে তার চুল টেনে ছিঁড়েই ফেললেন।

সেদিন সকালে নিজের বাড়ি থেকে ছেলে বন্ধুর সাথে দেখার করার উদ্দেশ্যে বের হচ্ছিলেন সাদিয়া। তার প্রতিবেশী, নাজমা নামের ৩২ বছর বয়সী এক গর্ভবতী মহিলা তাকে দেখতে পেয়ে তাড়াতাড়ি বিয়েটা সেরে ফেলতে বলেন। সবার তো বিয়ে হয়ে যাচ্ছে, আর কবে করবে সাদিয়া? এই প্রশ্নেই ভীষণ রাগ হয়ে যায় সাদিয়ার। সঙ্গে সঙ্গে নাজমার বাড়িতে ঢুকে তার চুল টেনে ধরে সাদিয়া। এসময় নাজমা বিকট চিৎকারে প্রতিবেশীদের সাহায্য চাইলেও কেউ তাকে সাহায্য করতে এগিয়ে আসেনি। বরং সবাই ওখানে দাঁড়িয়ে ঘটনা দেখে মজা নিচ্ছিলো আর সাদিয়াকে উৎসাহ দিচ্ছিলো। উৎসুক জনতার সাপোর্ট পেয়ে আরো উদ্দীপ্ত হয় সাদিয়া। সজোড়ে টানতে টানতে এক সময় নাজমার চুল ছিঁড়ে ফেলে সে।

পরে নাজমা স্থানীয় থানায় গিয়ে সাদিয়ার বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করলে পুলিশ এসে এ্যরেস্ট করে সাদিয়াকে। আপাতত সাদিয়া রিমান্ডে আছে। (আলোচিত সেই  ঘটনার সময় জনৈক উৎসুক জনতার মোবাইল ফোনে ধারন করা ভিডিও ফুটেজ দেখে নিন)